রবিবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০

খাগড়াছড়িতে ঐতিহ্যবিহী হাতির সমাধি সৌধ

  • আবুল হাসেম, খাগড়াছড়ি
  • ২০২০-০৯-১৫ ১৯:২৩:৪১
image

চির সবুজ গাছ-গাছালি আর পাহাড় বেষ্টিত খাগড়াছড়িতে একসময় যোগাযোগ ব্যবস্থা বেশ খারাপ ছিল। সে সময় প্রশাসনিক কার্যক্রমে অন্যতম বড় বাধা ছিল দুর্গম এলাকাসমূহে যাতায়াত ব্যবস্থা। ঐ সময় যাতায়াতের মাধ্যম হিসেবে হাতির ব্যবহার ছিল  অনস্বীকার্য। ভৌগলিক গঠনের কারণে পিছিয়ে পড়া এ জনপদে তিন দশক আগেও জেলা প্রশাসকরা প্রত্যান্ত এলাকায় প্রশাসনিক কাজে হাতির পিঠে চড়ে চলাচল করতেন।

১৯৮৩ সালে খাগড়াছড়ি জেলা ঘোষণার পর থেকেই জেলা প্রশাসকগণ প্রশাসনিক কাজে হাতি ব্যবহার করতেন। হাতির পিঠে চড়ে তাঁরা সরকারি কাজ করতেন। তারই ধারাবাহিকতায় ৯০ দশকে খাগড়াছড়ির তৎকালীন জেলা প্রশাসক খোরশেদ আনসার খাঁন পোষ্যহাতি ‘ফুলকলি’র পিঠে চড়ে পাহাড়ের প্রত্যন্ত এলাকায় যেতেন।

১৯৯০ সালে তাঁর সর্বশেষ ফুলকপি নামীয় হাতিটি অন্য একটি বন্যহাতির আক্রমণে মারা যায়। ফুলকলির মৃত্যুর পর খোরশেদ আনসার খাঁন পরম মমতায় ফুলকলিকে খাগড়াছড়ির গোলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের সামনে সমাধিস্থ করেন।

খাগড়াছড়ির বিভিন্ন প্রকাশনায় জেলা প্রশাসকের হাতি ‘ফুলকলি’র কবরের কথা উল্লেখ থাকলেও ঐহিত্যবাহী হাতিটির সমাধিস্থল শুধুমাত্র ইট দিয়ে বেষ্টনী দেয়া হয়েছিল, যা এতদিনে সংরক্ষণের অভাবে জরাজীর্ণ এবং পরিত্যক্ত হয়ে পড়েছিল। উদ্যোগের অভাবে ঝোপঝাড়-জঙ্গলে ঢেকে গিয়েছিল সেই সমাধিস্থল। খাগড়াছড়িতে বেড়াতে আসা পর্যটকরা ‘ফুলকলি’র ইতিহাস সম্পর্কে অবগত নন। দীর্ঘসময় পেরিয়ে যাবার পর  ‘ফুলকলি’র সমাধিস্থল সংরক্ষণের উদ্যোগ নিয়েছে খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস।

ফুলকলির স্মৃতিকে ধরে রাখতে এবং খাগড়াছড়ির যোগাযোগমাধ্যম হিসেবে হাতির ব্যবহারের ঐতিহ্য  পর্যটক ও স্থানীয়দের কাছে তুলে ধরতে খাগড়াছড়ির গোলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের সামনে ‘ফুলকলির সমাধিসৌধ’ গড়ে তোলা হচ্ছে।

খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসনের অর্থায়নে নির্মিত সমাধিসৌধের নির্মাণ কাজ আগামী নভেম্বরের মধ্যে শেষ হবে। এরপরই তা পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত করা হবে। ব্যতিক্রম এ নির্মাণশৈলীর কারণে ফুলকলির ইতিহাস অবগত হবার পাশাপাশি পর্যটকরা মুগ্ধ হবেন বলে মনে করছেন অনেকে।

গণর্পূত বিভাগের কারিগরি সহায়তায় ২ সেপ্টেম্বর ফুলকলির সমাধিসৌধের নির্মাণকাজের উদ্বোধন করেন কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।


 

 

এশিয়ান টাইমস্/এমজেডআর


এ জাতীয় আরো খবর