সোমবার, অক্টোবর ২৬, ২০২০

শেরপুরের গারো পাহাড়ের পাদদেশ থেকে ভিয়েতনামের মঞ্চে স্বরূপ আমিন

  • মইনুল হোসেন প্লাবন, শেরপুর
  • ২০২০-০৯-২১ ১৬:০৬:৫২
image

শেরপুরের সীমান্তবর্তী উপজেলা নালিতাবাড়ীর কৃতী সন্তান, তরুণ সমাজের আইডল ‘স্বরূপ আমিন’। স্বাধীনভাবে কাজ করার সুযোগ পাবেন বলে বেছে নিয়েছিলেন ফ্রিল্যান্সিং। পিতা নুরুল আমিন ও মাতা সেহেলী আমিন দম্পতির  দ্বিতীয় সন্তান সে। মেধাবী শিক্ষার্থী স্বরূপ আমিন নালিতাবাড়ীর তারাগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগে এসএসসি, নাজমুল স্মৃতি মহাবিদ্যালয় থেকে এইচএসসি পাস করে বর্তমানে ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে অধ্যয়ন করছেন। সে বাংলাদেশের সবচেয়ে কম বয়সী প্রিন্ট অন ডিমান্ড সেক্টর এর কানট্রি ম্যানেজার হিসেবে ভিয়েতনামে নিজের দক্ষতা প্রদর্শন করেছেন এবং করে চলছেন। বর্তমানে সে কোম্পানী থেকে ফিক্সড বেতনের পাশাপাশি প্রতি মাসে লক্ষাধিক টাকা অর্থ উপার্জন করছেন। বুদ্ধি ও মেধার বিকাশ ঘটিয়ে নিজ এলাকার পাশাপাশি দেশের শিক্ষিত-বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে বেকার মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন দেখেন স্বরূপ আমিন। এ ছেলেটিই আজ হাজারো তরুণের অনুপ্রেরণা। হাজারো তরুণের আইডল। 

জানা যায়, ছোট বেলা থেকেই একটু কৌতুহল প্রকৃতির ছিল ছেলেটি। নতুন কোন কিছুর উপর রিচার্স করা তার নেশাতেই পরিনত হয়েছিলো। মফস্বল এলাকা থেকে বেড়ে উঠা ছেলেটির মনে যখন আধুনিক প্রযুক্তির নানান দিক ঘুরপাক খাচ্ছিলো, তখন সে পঞ্চম শ্রেণীতে পড়ে। তার বাবা তখন শর্ত দিয়েছিলো, বৃত্তি পরীক্ষায় ভাল রেজাল্ট করলে একটা কম্পিউটার কিনে দিবে। যেমন কথা তেমন কাজ, ছেলেটা খুব ভাল রেজাল্ট করলো এবং বৃত্তিও পেলো। এরপর তার বাবা তার হাতে একটি কম্পিউটার উপহার দিলেন। শুরু হল তার আধুনিক জগতের সাথে নিবির চলাফেরা। প্রথম দিক থেকেই সে কঠিন থেকে কঠিন গেম এরও মিশন সম্পন্ন করে ফেলতো। সমস্যাকৃত নানা কম্পিউটারের উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম সে অনায়াসে রান করে দিতো। আর মোবাইলের বিভিন্ন সমস্যার সমাধানও করে ফেলতে পাড়তো। এরই ধারাবাহিকতায় প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিযোগিতা ‘আইজিনিয়াস’য়ে নালিতাবাড়ী উপজেলায় রানার্সআপ হয়েছিলো সে। সেই অনুপ্রেরণাতেই তার প্রযুক্তির প্রতি ভালবাসা আরও বেড়ে যায়। এরপর থেকেই নতুন কিছু জানার প্রতি বেড়ে যাই তার আগ্রহ। শুরু হয় আরও নতুন সব অজানা অধ্যায়ের। এরপর থেকে আউটসোর্সিং এর কাজ শুরু করে স্বরূপ আমিন। বর্তমানে সে আমেরিকা- ভিয়েতনাম ভিত্তিক যৌথ কোম্পানী ‘টিচীপ’র কমিউনিটি লিডার হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। এর আগে তিনি ভিয়েতনাম ভিত্তিক কোম্পানী বার্গারপ্রিন্টস বাংলাদেশর কানট্রি ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

এ বিষয়ে স্বরূপ আমিন জানান, আমি যখন ইউনিভার্সিটিতে সবে মাত্র ভর্তি হই তখন আমার এক বন্ধুর মাধ্যমে জানতে পারি সে অনলাইনে ফ্রিলান্সিং করে। এরপর থেকেই ওই বিষয়ের উপর জানার ইচ্ছে জাগে আমার। এরপর গুগল, ইউটিউবে খুঁজাখুঁজি করে নিজে নিজেই ফ্রিল্যান্সিং শিখি। সামনের দিকে আরও এগিয়ে যেতে আমি সকলের দোয়া ও আর্শীবাদ কামনা করছি। 

 

 


এশিয়ান টাইমস্/এমজেডআর


এ জাতীয় আরো খবর