শুক্রবার, নভেম্বর ২৭, ২০২০

রাজধানীর উত্তরায় শক্তিশালী ৩১ হাতবোমা

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২০২০-১১-২০ ২১:৫৬:২০
image
ছবি: সংগৃহীত।

রাজধানীর উত্তরায় নির্মাণাধীন একটি ভবনে ৩১টি অবিস্ফোরিত শক্তিশালী হাতবোমা ও ককটেল পেয়েছে পুলিশ। ১০ নম্বর সেক্টরের ১৩ নম্বর সড়কের নির্মাণাধীন ওই বাড়ির নিচতলায় বোমাগুলো ছিল। বোমাগুলোর সন্ধান পাওয়ার পর শুক্রবার বিকাল সাড়ে চারটা থেকেই বাড়িটি ঘিরে রাখে পুলিশ। 

পরে বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট গিয়ে সেগুলো নিষ্ক্রিয় করে। ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে সহিংসতা সৃষ্টি করতে বোমাগুলো তৈরি করা হয়েছিল বলে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছে পুলিশ। 

এর আগে বোমা তৈরির সঙ্গে জড়িত দু’জনকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আটক করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) উত্তরা বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) কাজী শফিকুল আলম শুক্রবার রাত ৮টায় গণমাধ্যমকে বলেন, নির্বাচনের দিন উত্তরার কামারপাড়া ও মালেকা বাণু স্কুলে হাতবোমা ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাদের বিরুদ্ধে অভিযানে কিছু লোক ধরা পড়ে। যারা জানায়, কিছু বোমা তারা ব্যবহার করেছে এবং কিছু অব্যবহৃত ছিল। সেটি তাদের কথামতো আমরা উদ্ধার করেছি। পরে বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট এসে সেগুলো নিষ্ক্রিয় করে।

ডিসি কাজী শফিকুল আলম আরও বলেন, নির্বাচনের দিন বিস্ফোরণের পরেই ঘটনার রহস্য উদঘাটনে আমরা কাজ করছিলাম। তারই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার দুইজনকে আটক করি। পরে এরাই জানায়, বিস্ফোরিত হাতবোমাগুলোর বাইরেও অবিস্ফোরিত বেশ কিছু বোমা একটি নির্মাণাধীন ভবনে রয়েছে। এরই ভিত্তিতে ডিবি বোমাগুলোর সন্ধান পায়। 

গোয়েন্দা পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও জানান, উদ্ধারকৃত হাতবোমাগুলো খুবই শক্তিশালী। এমন ৩০টির অধিক বোমার স্তূপ সেখানে ছিল।

এদিকে সন্ধ্যায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ডিবি) একেএম হাফিজ আক্তার। সেখানে তিনি সাংবাদিকদের বলেছিলেন, হাতবোমাগুলোকে নিষ্ক্রিয় করা হচ্ছে। যেহেতু দু’জন আটক হয়েছে। তাই বোমা প্রস্তুত ও ব্যবহারের সঙ্গে জড়িত আরও অনেকের নাম আমরা পেয়েছি। তদন্ত করে পরবর্তীতে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

তিনি বলেন, এটি যেহেতু লোকালয়ের মধ্যে নির্মাণাধীন একটি বাড়ি। সেজন্য বোমাগুলো না সরিয়ে নিষ্ক্রিয় করার জন্যই আমরা কাজ করছি। বোমাগুলো বহন করে অন্য কোথাও নিয়ে যাওয়া নিরাপদ নয়- বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের এমন মতামতের পরেই সেগুলো এখানে নিষ্ক্রিয় করা হচ্ছে।

পুলিশ সূত্র জানায়, বোমাগুলোর পাশাপাশি এগুলো তৈরির সরঞ্জামও উদ্ধার করা হয়েছে। বাড়িটির মালিক বিদেশে থাকেন। ফলে বাড়িটি কারা দেখাশোনা করতো, জড়িতরা কীভাবে সেখানে গেল- সব খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাত ৯টায় ডিবি উত্তরা জোনাল টিমের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার বদরুজ্জামান জিল্লু গণমাধ্যমকে বলেন, মোট ৩১টি হাতবোমা নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে। সুমন ও মামুন নামের দু’জনকে আটক করা হয়েছে। অভিযান অব্যাহত রয়েছে। জড়িতদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

 

 

এশিয়ান টাইমস্/এমজেডআর


এ জাতীয় আরো খবর